দুই শিশু সন্তানের জন্য বাঁচতে চান শিউলি

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

জন্মের পর থেকেই দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিউলি বেগম। এমন অবস্থায় বছর দশেক আগে এক দোকানদার তাকে বিয়ে করে সংসার পাতেন। বিয়ের পর তাদের অভাব-অনটনের সংসার আলোকিত করে জন্ম নেয় ফুটফুটে দুটি ছেলেসন্তান। এরপর সুখেই কাটছিল তাদের দাম্পত্য জীবন।

এরই মধ্যে শিউলির জীবনে নেমে আসে কালো মেঘের ছায়া। কিডনি রোগ আক্রান্ত হন তিনি। সেই সঙ্গে জরায়ু টিউমার হয়ে এখন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন। বর্তমানে অর্থের অভাবে মিলছে না শিউলির চিকিৎসা।

অসহায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিউলি বেগম (৩০) ফরিদপুরের সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের কাউলীকান্দা গ্রামের চা দোকানদার মো. নান্নু মোল্যার স্ত্রী।

শিউলির স্বামী নান্নু মোল্যা বলেন, স্ত্রীর চিকিৎসা করাতে গিয়ে আমার সহায়-সম্বল যা ছিল তা সব শেষ হয়ে গেছে। ৬-৭ বছরে প্রায় ৭-৮ লাখ টাকা খরচ করেছি। কিছুদিন আগে ওর টিউমার অপারেশন করা হয়েছে। এখন অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছি না। তাই সমাজের বিত্তশালী ও দানশীলদের কাছে বিনয়ের সঙ্গে সাহায্যের আবেদন করছি।

শিউলি বেগম বলেন, আমার শিশু ছেলেদের জন্য আমি বাঁচতে চাই। আমি মরে গেলে ওরা কোথায় যাবে। ওদের জন্য আমার বাঁচার অনেক ইচ্ছা। সমাজের বিত্তশালীরা দয়া করে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করে আমাকে বাঁচান।