নয়াপল্টন-বায়তুল মোকাররমে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন

আওয়ামী লীগ-বিএনপির সমাবেশ
স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১১ মাস আগে

নির্বাচন ঘিরে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তাপের পারদ বাড়ছে। এতদিন তা বিচ্ছিন্নভাবে দেখা গেলেও বুধবার (১২ জুলাই) বড় আকারে দৃশ্যমান হতে যাচ্ছে। রাজধানী ঢাকায় এদিন সমাবেশ ডেকেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং বিএনপিসহ অন্য বিরোধী দলগুলো।

একই দিন পাল্টাপাল্টি সমাবেশ ঘিরে রাজধানীতে এক ধরনের উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ফলে সমাবেশ ঘিরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ও জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সতর্ক অবস্থানে পুলিশ।

সরেজমিনে নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে ও বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেট সংলগ্ন স্থানে দেখা যায়, বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। কাউকে সন্দেহজনক মনে হলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তাকে। পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও গোয়েন্দা সদস্যরা কাজ করছেন।

ঢাকা মহানগর (ডিএমপি) পুলিশ বলছে, সমাবেশের নামে পরিবহন চলাচলে বাধা সৃষ্টি, লাঠিসোঁটা নিয়ে মিছিল কিংবা আইনশৃঙ্খলা বিঘ্নিত হয় এমন কাজ করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

জানতে চাইলে পল্টন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাহউদ্দীন মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, বিএনপির সমাবেশ ঘিরে পুলিশের প্রস্তুতি রয়েছে। বিএনপি কার্যালয়ের সামনে স্বাভাবিক ডিউটির চেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কেউ জানমালের ক্ষতি করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান পল্টন থানার ওসি।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ফারুক হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, নয়াপল্টনে বিএনপিকে ২৩টি শর্তে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেট সংলগ্ন স্থানে আওয়ামী লীগকেও সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে একই শর্তসাপেক্ষে। দুই রাজনৈতিক দলের সমাবেশ ঘিরে পুলিশ সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।

তিনি বলেন, ইউনিফর্ম ছাড়া সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ কাজ করছে। যে কোনো বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি মোকাবিলায় সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে পুলিশের।

আরও পড়ুন: ঢাকায় আজ আওয়ামী লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি সমাবেশ, সতর্ক পুলিশ

জানতে চাইলে মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) হায়াতুল ইসলাম খান জাগো নিউজকে বলেন, সমাবেশকে ঘিরে পুলিশের প্রস্তুতি রয়েছে। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ইতোমধ্যে মোতায়েন রাখা হয়েছে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ। মতিঝিল বিভাগ ছাড়াও অন্য বিভাগের পুলিশও সমাবেশকে কেন্দ্র করে আনা হয়েছে।

তিনি বলেন, সমাবেশের নামে কেউ নাশকতা বা বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সরকার পতনের এক দফার আন্দোলন ঘিরে দুপুর ২টায় নয়াপল্টনে সমাবেশ করবে বিএনপি। দলটিকে সমাবেশ করতে ২৩ শর্ত জুড়ে দিয়েছে পুলিশ।

অন্যদিকে বিকেল ৩টায় বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেট সংলগ্ন স্থানে শান্তি সমাবেশ করবে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ। বিএনপির মতো আওয়ামী লীগও ২৩ শর্ত পালন সাপেক্ষে সমাবেশের অনুমতি পেয়েছে।