বাইরে নৌকার জটলা, গোপন কক্ষে দুইজন!

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৬ মাস আগে

সকাল ৮টা। সবেমাত্র ভোটগ্রহণ শুরু। কুমিল্লা রেয়াজ উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, কেন্দ্রের বাইরে সারিবদ্ধ লোকজন। সবার গলাতেই নৌকার ব্যাজ। সাংবাদিক দেখতেই ব্যাজধারী কিছু লোক ঢুকে যায় কেন্দ্রের দিকে। তারপর আবারও সারিবদ্ধভাবে দাঁড়ায় ভোট দিতে। কুমিল্লা নগরীর ৫নং ওয়ার্ডের কেন্দ্র রেয়াজ উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, যেখানে একসাথে দুটি কেন্দ্র। ওই দুই কেন্দ্র পুরুষদের জন্য নির্ধারিত। দুই কেন্দ্রে মোট ভোটার চার হাজার ৩১২জন। সকাল ৮ টায় ভোটগ্রহণ শুরু হলেও ওই কেন্দ্রে তেমন ভোটার উপস্থিতি দেখা যায়নি।
এত গেল কর্মীদের জটলা। কেন্দ্রের একটি কক্ষে ঢুকতে দেখা যায়, গোপন কক্ষে দুইজন। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী গোপনকক্ষে শুধুমাত্র ভোটার থাকবেন। কিন্তু রেয়াজ উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে তা মানা হয়নি।
কেন্দ্রে আসা নৌকার ব্যাজধারী আবদুল কুদ্দুস জানান, আমরা বয়স্ক লোকদের সহযোগিতা করতে কেন্দ্রে এসেছি।
রেয়াজ উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার হাফিজুর রহমান জানান, কেন্দ্রে এখনও পর্যন্ত কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। সুন্দর ভোটগ্রহণের জন্য আমাদের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা থাকবে।
এ বিষয়ে জানতে কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি কল কেটে দেন।
কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী জানান, আমি বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।