বিএনপি নেতার বাড়িতে ছাত্রদল নেতাদের হামলা, আহত ৫

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ সপ্তাহ আগে

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ছাত্রদলের নেতাদের বিরুদ্ধে বিএনপির এক নেতার বাড়িতে হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ হামলায় অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর।

রোববার বিকেলে উপজেলার চরফকিরা ইউপির সেলিম চেয়ারম্যানের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ।

গুরুত্বর আহত ব্যক্তির নাম আব্দুল ওয়াদুদ সুবেল (৩৪)। তিনি ঐ বাড়ির আমির হোসেনের ছেলে।

ভুক্তভোগী বিএনপি নেতা জহির উদ্দিন সেলিম (৬০) চরফকিরা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এবং কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সাবেক সদস্য বারিস্ট্যার মওদুদ আহমদের সহধর্মিণী হাসনা জসিম উদ্দীন মওদুদের প্রতিপক্ষ হিসেবে পরিচিত উপজেলা বিএনপির সদস্য ফখরুল ইসলামের অনুসারী হচ্ছেন জহির উদ্দিন।

জহির উদ্দিন সেলিম বলেন, বর্তমানে আমি আমেরিকা প্রবাসী। রোববার বিকেলে আমার বাড়িতে চরফকিরা ইউপি ছাত্রদলের এক সভা ডাকা হয়। পরে কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশের ডিএসবি শাখার এক কর্মকর্তার নির্দেশে ছাত্রদলের সভা স্থগিত করা হয়। এর মধ্যে কিছু ছাত্রদলের নেতাকর্মী সভাস্থলে চলে আসে। একপর্যায়ে বিকেল ৫টা ১৫ মিনিটের দিকে হাসনা জসিম উদ্দীন মওদুদের অনুসারী চরফকিরা ইউনিয়ন ছাত্রদল নেতা শুভ ও তার বাবা বেলাল ও ছাত্রদল নেতা আসিফের নেতৃত্বে ১৫-২০জন অস্ত্রধারী আমার বাড়ির ভবনের দু’টি থাই গ্লাসে হামলা চালায়। এতে দু’টি থাই গ্লাস ভেঙে চুরমার হয়ে যায়। এ সময় আরেকটি টিন শেড ঘরে হামলা চালিয়ে দরজা-জানালা ভাঙচুর করে হামলাকারীরা। হামলাকারীরা সুবেল নামে একজনকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেয়। একই সময়ে হামলাকারীদের আঘাতে আরো চারজন আহত হন।

অভিযুক্ত ছাত্রদল নেতা শুভ ও আসিফের মোবাইলে একাধিকবার কল করা হলেও তারা সাড়া দেননি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. সাদেকুর রহমান বলেন, দুই গ্রুপের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে বিএনপির এক নেতার বাড়িতে হামলার খবর পেয়েছি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনিত ব্যবস্থা নেয়া হবে।