মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার কর, নতুবা এমপি প্রাণ গোপালের ইতিবাচক সংবাদ বর্জন করা হবে

কুমিল্লা নগরীতে মানববন্ধনে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দদের কঠোর হুশিয়ারি-
স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ।।

বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা জেলার সাধারণ সম্পাদক ও কুমিল্লা থেকে প্রকাশিত বৃহত্তর কুমিল্লার পাঠক নন্দিত পত্রিকা দৈনিক আমাদের কুমিল্লার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শাহাজাদা এমরানসহ তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা,ভিত্তিহীনও বানোয়াট মানহানী মামলা দায়ের করার প্রতিবাদে শুক্রবার সকালে কুমিল্লা নগরীর টাউন হল মাঠে এক প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা জেলা শাখা। প্রতিবাদ সমাবেশে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ কুমিল্লা জেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহাজাদা এমরানসহ তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অনতিবিলম্বে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানিয়ে বলেন, যদি দ্রুত এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হয় তাহলে কুমিল্লা-৭(চান্দিনা) সংসদীয় আসনের এমপি ডা. প্রাণ গোপালের সকল ইতিবাচক সংবাদ বর্জন করা হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে আরো কঠোর কর্মসূচী গ্রহন করা হবে।

বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা জেলার সভাপতি ইয়াসমীন রীমার সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুর রহমানের সঞ্চালনায় আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও প্রবীন সাংবাদিক আবুল হাসানাত বাবুল বলেন, যিনি মামলাটি করেছেন বা যারা মামলা দিতে উৎসাহিত করেছেন, আমি মনে করি তারা ডাঃ প্রাণ গোপালের রাজনীতির ক্ষতি করার জন্য এই কাজটি করেছেন। ডা: প্রাণ গোপাল যে সংবাদের জন্য আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছেন, তার জন্য তিনি একটি বিবৃতি দিতে পারতেন বা প্রতিবাদ দিতে পারতেন। তা না করে মামলা কেন করতে হল। চান্দিনা থেকে প্রাণ গোপাল এমপির অনুসারী হিসেবে পরিচিত যিনি মামলাটি করেছেন অনতিবিলম্বে মামলাটি প্রত্যাহর করবেন। প্রয়োজনে আপনারা চায়ের টেবিলে বসে বিষয়টি সমাধানে নিয়ে আসুন। নতুবা এই আন্দোলন আরও কঠোর হয়ে উঠবে।

কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ৭১ টিভির স্টাফ রিপোর্টার কাজী এনামুল ফারুক বলেছেন, দেশে ডিজিটাল আইনে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলার আইন চালু থাকলেও, সাংবাদিক রক্ষার কোনো আইন চালু হয়নি। রাজনীতির গ্রুপিংয়ে জড়িয়ে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে জয়নাল আবেদীনের মত কৃষকলীগ নেতারা তার নেতাকে খুশী করতে মামলা দেয়। অথচ আমরা দেখলাম ডাঃ প্রাণ গোপাল দত্ত আপনাকে কিছুদিন পূর্বে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতীয় সংসদের প্যানেল মেয়র করিয়েছেন। আপনি সেই সুযোগে রাষ্ট্রকে অবজ্ঞা ও প্রশ্নবিদ্ধ করতে জেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহাজাদা এমরান ভাইসহ ৩ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এখনো সময় আছে মামলাটি প্রত্যাহার করুন। অন্যথায় আমরা কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো। সাংবাদিকরা কর্মসূচি দিতে বাধ্য হলে শুধু কুমিল্লা নয় ১৭ উপজেলায় কর্মসূচী দেওয়া হবে। আপনার সকল ইতিবাচক সংবাদ বর্জন করা হবে। উন্নয়নের নামে যে ব্রীজ কালভার্ট হয়েছে তাতে কতটুকু দূর্নীতি হয়েছে তার সকল তথ্য তুলে ধরা হবে। তাই এখনো সময় আছে রাজনীতির ট্যাগ লাগিয়ে সাংবাদিকদের পিছে লাগানোর চেষ্টা করবেন না।

মানববন্ধনে অন্যান্যের বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি ও একুশে টিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি হুমায়ুন কবীর রনী, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা জেলার সহ সভাপতি ও সিটিভি নিউজের সম্পাদক ওমর ফারুকী তাপস, দৈনিক সমকালের কুমিল্লা প্রতিনিধি কামাল উদ্দিন , এখন টিভি কুমিল্লার ব্যুরো চীফ ও সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা যুগ্ম সম্পাদক খালেদ সাইফুল্লাহ, মাই টিভি কুমিল্লা প্রতিনিধি আবু মুসা দৈনিক ব্রাহ্মনপাড়া-বুড়িচং সংবাদের সম্পাদক সৈয়দ আহাম্মদ লাভলু, ডিবিসি টিভির কুমিল্লা প্রতিনিধি নাসির উদ্দীন চৌধুরী, এখন টিভির স্টাফ রিপোর্টার মাসুদ আলম, সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লার প্রচার সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী,দৈনিক মানবকন্ঠের কুমিল্লা প্রতিনিধি তারিকুল ইসলাম তরুণ, আজকের জীবন কুমিল্লা প্রতিনিধি নেকবর হোসেন, কুবি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আহমেদ ইউছুফ আকাশ, দৈনিক আমাদের কুমিল্লার স্টাফ রিপোর্টার পুতুল আক্তার প্রমুখ।

এ সময় মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করেন চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের জাহিদুর রহমান,সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লার ক্রীড়া সম্পাদক এন কে রিপন, আমাদের কুমিল্লার স্টাফ রিপোর্টার মুজিবুর রহমান মুকুল, আবু সুুফিয়ান রাসেল, সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ, আবু হনিফ মজুমদার মো. হাসান, সাইমুম ইসলাম অপি ,রাইজিং বিডি কুমিল্লা প্রতিনিধি রুবেল মজুমদার, দৈনিক যায়যায় দিনের বরুড়া প্রতিনিধি মাসুদ মজুমদার, দেশ রুপান্তরের বরুড়া প্রতিনিধি সুজন মজুমদার, চৌদ্দগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার রানা,বুড়িচং উপজেলার আমাদের কুমিল্লা প্রতিনিধি হান্নান রোকন, আকাশ টিভির সম্পাদক মহিউদ্দিন আকাশ, ব্রাহ্মনপাড়ার দৈনিক যুগান্তর প্রতিনিধি সৌরভ মাহমুদ হারুন, ব্রাহ্মনপাড়া সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ফারুক আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক গাজী ররুবেল, স্বাধীন ভোরের সম্পাদক সোহাগ মিয়াজী, সদর দক্ষিণ উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি শাহ ফয়সাল কারীম, কুমিল্লার জমিনের স্টাফ রিপোর্টার জাহিদ হাসান নাঈম, হৃদয় হাসান, দেবিদ্বার যুগান্তর প্রতিনিধি আক্তার হোসেন, ভয়েস বাংলার প্রতিনিধি হান্নান, ব্রাহ্মণপাড়া মানবজমিন প্রতিনিধি সাইফুল ইসলাম ভূইয়া, জামাল হোসেন, লালমাই প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, অপরাধ বিচিত্রার প্রতিনিধি এম এ মান্নান, কালজয়ী প্রতিনিধি সজিব ভূইয়া, ঢাকা ক্যানভাস প্রতিনিধি খন্দকার মহিবুল হক, আমাদের বাংলা প্রতিনিধি মনির হোসেন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত ৩ জুন চান্দিনা উপজেলা আওয়ামী লীগের কর্মী সমাবেশে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও মহিচাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু মুছা মজুমদারসহ নেতাকর্মীরা স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্তের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ তুলে বক্তব্য দেন। পরের সেটি তুলে ধরে সংবাদ পরিবেশন করে দৈনিক আমাদের কুমিল্লাসহ বেশ কয়েকটি জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকা। ওই সংবাদের প্েেরিতই দৈনিক আমাদের কুমিল্লার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নাসিমা খান মন্টি, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শাহাজাদা এমরান ও পত্রিকাটির চান্দিনা প্রতিনিধি মাসুমুর রহমান মাসুদ এবং চান্দিনার মহিচাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু মুছা মজুমদারকে আসামি করে কুমিল্লার আদালতে ৬ কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের প্রাণ গোপাল দত্ত এমপির অনুসারী চান্দিনা পৌর কৃষকলীগ সভাপতি জয়নাল আবেদীন জনি।