১০ অঞ্চলে তাপপ্রবাহের শঙ্কা, গরম আরও বাড়তে পারে

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

বৃষ্টি কমে তাপমাত্রা বেড়ে আবারও শুরু হয়েছে তাপপ্রবাহ। আজ শনিবার দিনের তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। একই সঙ্গে সন্ধ্যার মধ্যে ১০ অঞ্চলের ওপর দিয়ে তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।

শনিবার (২০ মে) সকালে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বেশিরভাগ অঞ্চল ছিল বৃষ্টিহীন। দেশের ৪৪টি আবহাওয়া স্টেশনের মধ্যে ৩৩টিতেই কোনো বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়নি। এ সময়ে সবেচেয়ে বেশি ৩২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে সিলেটে। তবে এ সময়ে ঢাকায় কোনো বৃষ্টি হয়নি, চট্টগ্রাম বিভাগও ছিল বৃষ্টিহীন। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের চার জেলায় শুরু হয়েছে মৃদু তাপপ্রবাহ।

গত ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টি না থাকায় ঢাকায় গরম বাড়ছে। শনিবার সকাল থেকে ঢাকার আকাশে কিছুটা মেঘ আছে।

আবহাওয়াবিদ মো. আব্দুল হামিদ মিয়া জানান, শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। একই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। এ সময়ে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

খুলনা, সাতক্ষীরা, চুয়াডাঙ্গা ও যশোর জেলার ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, এ তাপপ্রবাহ অব্যাহত হতে পারে।

আগামী তিনদিনে আবহাওয়া পরিস্থিতির সামান্য পরিবর্তন হতে পারে বলেও জানান আব্দুল হামিদ মিয়া।

শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল মোংলায়। এদিন ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শনিবার সকালে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ময়মনসিংহে ১৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।