রবিবার, ৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
ঢাকায় ৮ তলার ওপর ভবন অনুমোদন না দেয়ার পরিকল্পনামাইগ্রেনের যন্ত্রণা কমায় গাঁজা : গবেষণাজন্ম থেকেই ব্যাটম্যান!পাকিস্তানে মসজিদ থেকে লাখ টাকা দামের জুতা চুরি!ক্ষুধার জ্বালায় মাটি খেত শ্রীদেবীর ৬ সন্তান, এগিয়ে এল সরকারসুদানের ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২৩উষ্ণতম বছরের তালিকায় এক নম্বর ২০১৯চার্জে রেখে মোবাইল ব্যবহারের সময় বিদ্যুতায়িত হয়ে মৃত্যুশক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল চিলিবিশ্বের সবচেয়ে বড় রক্তাক্ত উৎসব নেপালের গাধিমাইভারত হিন্দু রাষ্ট্র!অস্ট্রেলিয়ায় ভয়াবহ দাবানলজলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ৭ম বাংলাদেশবিয়ের আগে যৌন মিলন, বেত্রাঘাতে জ্ঞান হারালেন যুবকভারতে অনলাইনে ওষুধ বিক্রি বন্ধে আদালতের নির্দেশদিল্লিতে কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৩৫মহাসাগরে বিপদ : দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে অক্সিজেন বাড়ছে তাপমাত্রাকুমিল্লায় বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে ৫ সন্তানের জননী নিহতআজ কুমিল্লা মুক্ত দিবসশাসন শোষণ নীপিড়ন থেকে মুক্তি চায় ডিপ্লোমা কৃষিবিদরা

নবান্ন উৎসবে মাছের মেলা ‘এই বড় বড় মাছ, নদীর খুব স্বাদের মাছ’

‘এই বড় বড় মাছ, নদীর মাছ। খুব স্বাদের মাছ। ১০ কেজির কাতলা মাছ।’ বগুড়া উথলী গ্রামে মোকামতলা-জয়পুরহাট আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশ থেকে মাইকে এমন শব্দ ভেসে আসছিল। সেখানে নবান্ন উৎসব উপলক্ষে সোমবার দিনব্যাপী বসেছিল মাছের মেলা।

এ উপলক্ষে বিভিন্ন স্থানের হাটবাজারে মাছের মেলা বসে। দাওয়াতে আসা মেয়ে-জামাই, নাতি-নাতনি ও আত্মীয়স্বজনকে মাছ, নতুন চালের ভাত ও সবজি দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়েছে।

নন্দীগ্রাম উপজেলার বৃহৎ রণবাঘা ও ওমরপুর বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, হরেকরকম মাছের মেলা বসেছিল।

প্রতিটি দোকানে

প্রতিটি দোকানে সাজানো হয়েছিল বোয়াল, রুই, কাতলা, চিতল, সিলভার কার্প, বাগাড়সহ হরেকরকমের মাছ দিয়ে।

এক কেজি থেকে ১৪ কেজি ওজনের মাছ বিক্রি হয়। জনগণ পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়স্বজনকে আপ্যায়নে উৎসাহের সঙ্গে মাছ কিনেছেন। কোনো কোনো বিক্রেতা বিশালাকৃতির মাছ মাথার ওপর তুলে ধরে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

উপজেলার নামুইট গ্রামের মাছ বিক্রেতা মিন্টু মিয়া জানান, নবান্ন উৎসবকে ঘিরে অনেকে বাড়ির আশপাশের পুকুরে মাছ চাষ করেন। নবান্নের কারণে বড় বড় মাছ বিক্রি করতে আনেন। তারা ক্রেতাদের ক্রয়ক্ষমতাকে চিন্তা করে মাছের দাম কম রাখেন।

মাছ বিক্রেতা মোকাব্বর হোসেন জানিয়েছেন, মাছের আকারভেদে একটি মাছ ৮ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে।

উপজেলার নন্দীগ্রাম সদরের অসিম কুমার রায় জানিয়েছেন, ওমরপুর বাজার থেকে ৫ হাজার টাকার মাছ কিনেছেন।

দাসগ্রামের বাদল চন্দ্র জানিয়েছেন, রুই মাছ ৪৮০ টাকা কেজি, বিগ্রেড ৫৫০ টাকা কেজি ও চিতল ৯০০ টাকা কেজি দরে কিনেছেন।

নাটোরের সিংড়া উপজেলার মাসিন্দা গ্রামের অমল কুমার জানান, বিগ্রেড, সিলভারকার্প, রুই ও কাতলা মাছের দাম ঠিক আছে। অন্য বছরের চাইতে এবার চিতল ও বোয়াল মাছের দাম একটু বেশি। তবে বাজারে বড় বড় মাছ দেখে মনটা বেশ খুশি।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *