কুমিল্লায় কিশোরকে গাছের সাথে বেঁধে অমানসিক নির্যাতন

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১১ মাস আগে

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার শ্রীবল্লভপুর এলাকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এনামুল হোসেন (১৩) নামে এক কিশোরকে গাছে বেঁধে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ঘটনায় আহত এনামুল হোসেনের পিতা মো: তোফাজ্জল হোসেন বাদী হয়ে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় শ্রীবল্লবপুর এলাকার মকবুল হোসেনের পুত্র মো: শাহ আলমসহ অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ দায়েরের দুই দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবার।
ওই অভিযোগ থেকে জানা যায়,গত শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় শাহ আলমের নাতির সাথে এনামুল হোসেনের ধাক্কা লেগে মাটিতে পড়ে যায়। এই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শাহ আলম সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে অস্ত্র-শস্ত্রসহ এনামুলকে খুঁজতে থাকে এবং বিভিন্ন হুমকি ধমকি দেয়। সন্ত্রাসীদের ভয়ে এনামুল বাড়ি থেকে হতে পারে না এবং স্কুলেও যেতে পারছে না। গত ১৫ জুলাই বিকাল সাড়ে ৫টায় বিএনপির নেতা শাহ আলমসহ সন্ত্রাসীরা অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে এনামুল হক বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতন চালায়।
এক পর্যায়ে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে কাঁচা গাছের লাঠি দিয়ে আঘাত করে শাহ আলম। শাহ আলমের আঘাতে তার মাথা ফেটে গিয়ে মারাত্মক রক্তাক্ত জখম হয়। এছাড়াও শাহ আলম ওই এনামুলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে নির্যাতন করে ফুলা জখম করে এবং শাহ আলমের ঘরে আটক করে রাখে। এনামুলের পিতা অনেক খোঁজখুঁজি করে রাত সাড়ে ৮টার সময় শাহ আলমের ঘর থেকে উদ্ধার করে। এছাড়াও তার ভাই ইমান হোসেনকে মারধর করে। পরে আহত অবস্থায় এনামুলকে সদর দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। বর্তমানে ওই সন্ত্রাসী শাহ আলম বাহিনীর ভয়ে বাড়িতে অবস্থান করছেন।
মুঠোফোনে শাহ আলমকে একাধিকবার যোগাযোগ করার জন্য কল দিলে তিনি রিসিভ করেন নি।
এ বিষয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে।