কুমিল্লায় স্বর্ণালংকারসহ ২ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কুমিল্লা নগরীর টমছমব্রীজ এলাকায় যানজটে আটকে পরা সিএনজি অটোরিকশায় থাকা স্বামী-স্ত্রীর গলায় ছুরি ধরে স্বর্ণ লুটের ঘটনার মামলা দায়েরের ১২ ঘন্টার মধ্যে ছিনতাই হওয়া ২ ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন এবং কানের দুল উদ্ধার সহ ২ জন পেশাদার ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত ছিনতাইকারীরা হলো- নগরীর চর্থা এলাকার হান্নান হোসেন খোকনের ছেলে কামরুল হাসান মজুমদার মধু (২৬) ও গর্জনখোলা এলাকার মৃত সফিকুল ইসলামের ছেলে জহিরুল ইসলাম জনি (৩৫)।
গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে কুমিল্লা জেলা পুলিশ জানায়, ৬ মে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ এলাকার ওমর ফারুক ও তার স্ত্রী বকুল বেগম গ্রামের বাড়ী থেকে সিএনজি অটোরিকশা যোগে বস্তা ভর্তি চাল নিয়ে কুমিল্লা নগরীর বাগিচাগাঁও এলাকায় আসতে থাকে। দুপুর ২টায় টমছমব্রীজ নিউ হোস্টেল সংলগ্ন রাস্তায় সিএনজি অটোরিকশাটি যানজটে আটকে যায়। ঐ সময় ২ জন ছিনতাইকারী এসে স্বামী-স্ত্রীর গলায় ছুরি ধরে বকুল বেগম এর কানের স্বর্ণের দুল ২টি ও গলার স্বর্ণের চেইন ১টি, যার ওজন প্রায় ২ ভরি ছিনিয়ে নেয়। ছিনতাইকারী দুইজন ২ মিনিটের মধ্যেই ছিনতাই শেষে দ্রুত পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় ১০ মে কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন বকুল বেগম। পুলিশ ঘটনার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ঘটনাস্থলের আশপাশের সিসি ফুটেজ সংগ্রহ পূর্বক ঘটনায় জড়িত ২জন ছিনতাইকারীকে চিহ্নিত করে রাতেই অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।এসময় ছিনতাই হওয়া স্বর্ণের চেইন এবং কানের দুল উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ আরো জানায়, কামরুল হাসান মজু প্রকাশ্যে মধুর নামে ডাকাতি, ছিনতাই, দ্রুত বিচার আইন সহ সর্ব মোট ৮টি এবং মো: জহিরুল ইসলাম প্রকাশ জনির নামে ডাকাতি, চুরি, এবং দ্রুত বিচার আইনের ৩টি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

গ্রেফতারকৃতদের বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে কুমিল্লা জেলখানায় প্রেরণ করা হয়।