কুমেক হাসপাতাল থেকে দালাল আটক

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ ।।
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে দালালের খপ্পরে পড়ে এক নারী রুগী। অতঃপর রুগী কুমেক হাসপাতাল পরিচালকের দারস্থ হলে আনসার ও পুলিশ বাহিনী ওই দালালকে আটক করে।
শনিবার (১৩ মে) বেলা ১২টায় কুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকীর নির্দেশক্রমে পিসি মোঃ রিপন উদ্দিন হাসপাতালের সামনে থেকে আটক করে।
আটকৃত ব্যক্তি কুমিল্লা চান্দিনা উপজেলার চান্দিয়ারা এলাকার বিজয়নন্দির ছেলে পাইলট চন্দ্র নন্দি(১৮)। সে কুমেক হাসপাতাল সংলগ্ন কুচাইতলীর হ্যাল্থ ভিউতে কাজ করে।
জানা যায়, সে দীর্ঘদিন যাবত কুমেক হাসপাতাল থেকে হ্যাল্থ ভিউ নামের ডায়াগনস্টিকসহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে রোগী ভাগিয়ে নিয়ে যেত। বেসরকারি হাসপাতালে রোগীদের পরীক্ষা ও নির্দিষ্ট ফার্মেসি থেকে ওষুধ কিনতে বাধ্য করাসহ নানা কার্যক্রমে সে জড়িত ছিল।
কুমেক হাসপাতাল আনসার বাহিনীর ক্যাম্প ইনচার্জ মোঃ রিপন উদ্দিন বলেন,সকালে হাসপাতালের সামনের এক রুগীকে বাহিরে পরীক্ষা নীরিক্ষা করতে জোরাজোরি করার সময় রুগী পরিচালক স্যারকে দেখে অভিযোগ করলে, স্যারের নির্দেশে হাসপাতালের সামনে থেকে পুলিশসহ আমরা এই দালালকে আটক করি। সে দীর্ঘদিন যাবত এই কাজে জড়িত ছিল বলেও স্বীকার করে। তার বিরুদ্ধে আইনানুত ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে কুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন,মেডিকেল থেকে দালাল আটক করতে আমাদের আনসার বাহিনী ও প্রশাসনের লোক নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। হাসপাতালে আসা কোনো রুগীর চোখের সামনে যদি এসব দালাল চোখে পড়ে তারা যেনো আমাকে ও আমার আনাসার বাহিনীদের খবর দেয়।তারা তাদের দ্রুত চিহ্নিত করে আটক করে ফেলবে।হাসপাতালকে দালালমুক্ত করতে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।