দেবিদ্বারে ৭ বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্র কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৯ মাস আগে

দেবিদ্বারে ৭ বছর বয়সী এক শিশু ধর্ষণের অভিযোগে এক বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রকে আটক করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (২৩ মে) আটককৃত ওই ছাত্রকে কুমিল্লা ৪ নং ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে ম্যাজিস্ট্রেট অভিযুক্তকে জেল হাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।
অভিযুক্ত মো. মহিউদ্দিন(২১) ভূষণা গ্রামের মো. নজরুল ইসলামের পুত্র। সে ঢাকা সাউথ ইষ্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র এবং ভিক্টিম স্থানীয় একটি মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী।
মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ১৯ মে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় নিজ বাড়ির পুকুরপাড়ে মাদ্রাসা পড়ুয়া দ্বিতীয় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করে মো. মহিউদ্দিন। ধর্ষণের পর শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি এসে তার মাকে ঘটনাটি জানালে স্থানীয়দের সহযোগীতায় দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি নিয়ে যায়। পুলিশ সংবাদ পেয়ে ২১ মে ভিক্টিমসহ তার পরিবারের লোকদের থানায় ডেকে নিলে ভিক্টিমের বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মহিউদ্দিনকে একমাত্র আসামী করে মামলা দায়ের করেন। মামলার পর গত ২২ মে (রোববার) কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভিক্টিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয় এবং কুমিল্লার ৪ নং ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হলে আদালতের বিচারক মো. ওমর ফারুক ২২ ধারায় ভিক্টিমের জবানবন্ধি রেকর্ড করেন।
২২ মে (সোমবার) রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঢাকা থেকে অভিযুক্ত মো. মহিউদ্দিনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন এবং মঙ্গলবার (২৩ মে) আটককৃত ওই ছাত্রকে কুমিল্লা ৪ নং ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে ম্যাজিস্ট্রেট মো. ওমর ফারুক অভিযুক্তকে জেল হাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।
এ ব্যাপারে দেবিদ্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. খাদেমুল বাহার বিন আবেদ র বলেন, ধর্ঘনের ঘটনায় ভিক্টিমের বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। অভিযুক্ত মহিউদ্দিনকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গ্রেফতার পূর্ববক আজ (২৩ মে) কোর্ট হাজতে চালান করা হয়েছে।