নকল করতে না দেওয়ায় শিক্ষকের ওপর হামলা

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কুমিল্লার চান্দিনায় নকল করতে না দেওয়ায় শিক্ষকের ওপর হামলা করে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে এসএসসি পরীক্ষার্থীরা। এসএসসির গণিত পরীক্ষার পর মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার এতবারপুর আজম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষক মো. আবু সাঈদ (৪৫) উপজেলার বড় গোবিন্দপুর আলী মিয়া ভূঁইয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। তিনি চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। তিনি কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলার কাশালা গজারিয়া গ্রামের মো. আলাউদ্দিনের ছেলে।

আবু সাঈদ বলেন, ‘মঙ্গলবার গণিত পরীক্ষা চলছিল। আমি কেন্দ্রের ১নং কক্ষে পরিদর্শকের দায়িত্বে ছিলাম। কয়েকজন পরীক্ষার্থী নকল করার চেষ্টা করেছিল। আমি তাদের কোনো প্রকার নকল বা অসদুপায় অবলম্বনের সুযোগ দিইনি। পরীক্ষা শেষে খাতা জমা দিয়ে বের হওয়ার সময় কেন্দ্রের মাঠে পরীক্ষার্থী ও বহিরাগতসহ ৮-১০ জন আমার পথরোধ করে হামলা চালায়। তারা এ সময় ইট দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে।’

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আরিফুর রহমান জানান, আহত শিক্ষক আবু সাঈদের মাথায় জখম হয়েছে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন আছে। মাথার ফাটা স্থানে সেলাই লাগলেও তিনি শঙ্কামুক্ত রয়েছেন।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে এতবারপুর আজম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের সচিব মো. হুমায়ুন কবির ভূঁইয়াকে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার ওসি মো. সাহাবুদ্দীন খান বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আহত শিক্ষক হাসপাতালে ভর্তি আছেন। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) তাপস শীল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হাসপাতালে গিয়ে আমি আহত শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলেছি। দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।