৪ হাজার টাকার জন্য বন্ধুকে খুন, ১৬ বছর পর অপর বন্ধুর মৃত্যুদন্ড

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ মাস আগে

কুমিল্লায় চার হাজার টাকার জন্য বন্ধুকে খুনের মামলায় অপর বন্ধুর মৃত্যুদন্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। ঘটনার ১৬ বছর পর বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বিকেলে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-৪ এর বিচারক বেগম সেলিনা আক্তার এ রায় দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী রেবেকা সুলতানা (তপ্না)। দন্ডপ্রাপ্ত আসামি কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার নাওতলা গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে মো. ইসমাইল।

রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী রেবেকা সুলতানা জানান, ২০০৬ সালে কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার সানানগর ফকির বাড়ির শাহজাহান ৪ হাজার টাকা নিয়ে রিকশা কেনার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। এসময় তিনি তার বন্ধু মো. কবির ও মো. ইসমাইলকে তার সাথে নিয়ে যায়। সেদিন বের হওয়ার পর শাহজাহান আর বাড়ি ফেরেনি। পরে বাড়ির পাশেই মাথায় আঘাত প্রাপ্ত মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। এ ঘটনার পরে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন তার স্ত্রী আমেনা বেগম। কিছুদিন পর মামলায় শাহজাহানের দুই বন্ধু ইসমাইল ও কবিরকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দেয় দেবিদ্বার থানা পুলিশ। ঘটনার ১৬ বছর পর বৃহস্পতিবার আদালত ইসমাইলকে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছে। রায় ঘোষণার সময় ইসমাইল উপস্থিত ছিল না। এসময় মামলার অপর আসামি কবিরকে খালাস দেয় আদালত।

এই আইনজীবী আরও জানান, ইসমাইল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছিল। সে শাহজাহানকে মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে তার ৪ হাজার টাকা লুট করেছে বলে স্বীকার করে। আদালতের এই রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।