সংবাদ শিরোনাম
শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০১৯ ইং | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
কুমিল্লায় প্রেমিক যুগলের নগ্ন ভিডিও ধারন করায় ইউপি সদস্য আটককুমিল্লায় বিরল রোগে আক্রান্ত একই পরিবারের চারজনের সহায়তা কামনাকুমিল্লা নগরীতে পণ্য প্রত্যাহারে অভিযান, ৬ দোকানকে জরিমানা জরিমানা : # স্বপ্ন সুপারশপকে- ১০ হাজার টাকা # আমানা বিগ বাজারকে – ৩০ হাজার টাকা # খাকন স্টোর ও যদু লাল সাহার দোকানকে -১০ হাজার টাকা # মেসার্স হক এন্ড সন্সকে ৫ হাজার টাকা # হোসেন মোল্লা হোটেলেকে- ৩ হাজার টাকাকুমিল্লা সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের মনোনয়ন জমা দিলেন টুটুলধানের ন্যায্য মূল্যের দাবী জানিয়ে কুমিল্লা জেলা বিএনপির স্মারক লিপিবাঞ্ছারামপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যুচলন্ত বাসে নার্সকে ধর্ষণের পর হত্যার প্রতিবাদে চৌদ্দগ্রামে মানববন্ধনঅবশেষে বহিস্কার করা হলো ধর্ম কটুক্তিকারী কুবির সেই ছাত্রকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাব্যস্ততা বাড়ছে কুমিল্লার দর্জি পাড়ায়ড্রেজারে আটকে গেল শিশু মারজানার জীবনফেনীতে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ ৫২টি পণ্যকুমিল্লায় বিজিবির সাথে বন্ধুকযুদ্ধে মাদক চোরাকারবারী নিহতকুমিল্লায় বিজিবির অভিযানে মাদকসহ আটক ১গবাদি পশুপালন করে কৃষকদের স্বাবলম্বী করতে হবে – সেলিমা আহমাদ মেরী এমপিকুমিল্লা নামেই বিভাগ হতে হবে – এমপি বাহারকুমিল্লায় মৌসুমী ফলের সমারোহ # আসছে ভারত থেকেওইমলাম ধর্ম ও মহানবী (সা.)কে নিয়ে – আপত্তিকর মন্তব্যের কারণে কুবি শিক্ষার্থী গ্রেফতারবুড়িচংয়ের এ যেন ব্রিজ নয় সাক্ষাত মৃত্যুর ফাঁদঅটোরিকশা চুরির সময় শালা-দুলা ভাই আটকছুটির দিনে কুমিল্লা নগরীতে জম জমাট ঈদ কেনাকাটা

ওয়াহেদ ম্যানশনের কেমিক্যাল অপসারণ শুরু

চকবাজারের চুড়িহাট্টায় হাজী ওয়াহেদ ম্যানশন নামের যে ভবনটিতে আগুনের সূত্রপাত বলে দাবি করা হচ্ছে, সেই ভবনটির বেজমেন্টে থাকা কেমিক্যাল অপসারণের কাজ শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)।

শনিবার দুপুর থেকে সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তারা অপসারণের কাজ শুরু করেন।

তারা দাবি করেন, আগুনের সূত্রপাত সিলিন্ডার বিস্ফোরণের কারণে হলেও বারবার কেমিক্যালকে দায়ী করা হচ্ছে।

অপসারণের সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন। এ সময় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, অগ্নিকাণ্ডে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত ভবন ওয়াহেদ ম্যানশনের বেজমেন্টের কেমিক্যাল অপসারণ কাজ শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন। আর এর মধ্য দিয়ে পুরান ঢাকার কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণ কাজ শুরু হল।

তিনি বলেন, এখনও যেসব বাড়ির মালিকরা কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণের উদ্যোগ নেননি সেসব বাড়ির মালিকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। অগ্নিকাণ্ডের কয়েকদিন আগে পুরান ঢাকার কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণের উদ্যোগ নিয়েছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে এর দুইদিন পরই এতো বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো। আজ থেকে ওয়াহেদ ম্যানশন দিয়ে এই অপসারণ কাজ শুরু হলো। যতক্ষণ পর্যন্ত পুরান ঢাকার সব কেমিক্যাল গোডাউন স্থানান্তর অপসারণ না হবে ততক্ষণ এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

 

chakbazar-2

তিনি আরও বলেন, যদি কোনো বাড়িতে কেমিক্যাল গোডাউন থাকে এবং মালিকরা যদি সেই গোডাউন অপসারণের উদ্যোগ না নেন তাহলে আমরা মালিককে আইনের আওতায় নিয়ে আসব। যার বাড়িতে কেমিক্যাল গোডাউন রয়েছে নিজ দায়িত্বে তা সরিয়ে নিন।

নগরীর যান-মাল রক্ষায় দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে সাঈদ খোকন বলেন, আমরা সবার সহযোগিতা চাচ্ছি। পুরান ঢাকায় এক একটি এলাকায় লাখ লাখ বাড়িঘর। আমরা আশা করব স্থানীয়রা আমাদের সহায়তা করবেন। পার্শ্ববর্তী কোনো বাড়িতে কেমিক্যাল গোডাউন দেখতে পেলে আমাদের জানাবেন, পুলিশকে জানাবেন।

এর আগে সকালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রথমে চকবাজার, এরপর পর্যায়ক্রমে পুরান ঢাকা থেকে সব কেমিক্যাল গোডাউন সরিয়ে নেয়া হবে। শনিবার সকালে চকবাজারের অগ্নিদুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

পুরান ঢাকায় মজুদ সব কেমিক্যাল ও রাসায়নিক পদার্থ দ্রুত নিরাপদ স্থানে সরিয়ো নেয়ার কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, পুরান ঢাকা থেকে অবৈধ সব কেমিক্যাল গোডাউন সরিয়ে নেয়ার উদ্যোগ নিতে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি দিয়েছেন। ইতোমধ্যে অবৈধ রাসায়নিক কারখানা সরিয়ে নিতে কাজ শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)।

প্রসঙ্গত, বুধবার রাতে পুরান ঢাকার চকবাজারের চুড়িহাট্টার ৬৪ নম্বর ওয়াহেদ ম্যানশনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ৩৭টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ওই ঘটনায় শুক্রবার সকাল পর্যন্ত মোট ৬৭ জন নিহতের খবর জানায় ঢাকা জেলা প্রশাসন। আহত ও দগ্ধ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৪১ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন............
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *