কুমিল্লার সদর দক্ষিণে মাত্র একশ টাকার জন্য সহকর্মীর ছুরিকাঘাতে কিশোর খুন

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

কুমিল্লা সদর দক্ষিণে সহকর্মীর ছুরিকাঘাতে কাজী মারুফ (১৮) নামে এক কিশোর খুনের ঘটনা ঘটেছে।
পুলিশ বলছে, নিহত কিশোর একটি পেট্রোল পাম্পে কাজ করতেন। সকালে ওই পাম্পে কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে রাব্বি নামের সহকর্মী তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন।
নিহত কাজী মারুফ এস.কে পেট্রোল পাম্পের কর্মচারী। তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা সদর দক্ষিণের ঘোষগাঁও এলাকায়। অভিযুক্ত রাব্বি ও (১৯) একই এলাকার বাসিন্দা।

মারুফ কে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন তার বড় ভাই নাজমুল। হাসপাতালে নাজমুল জানান, বেলতলী কৃষ্ণপুরস্থ এস.কে পেট্রোল পাম্পে কাজ করত আমার ছোট ভাই কাজী মারুফ। গত রাতে ডিউটি করে সকালে বাসায় যাবে এমন সময় সকালে ডিউটি করতে আসা আরেক সহকর্মী রাব্বি আমার ভাইকে বলে রাতে ডিউটির সময় কত পাইছিলি, তখন আমার ভাই বলছে সব মিলে ১০০ টাকা হবে। তখন সে আমার ভাইকে বলে এই টাকার ভাগ দে, তখন টাকা দিতে না চাওয়াই সে আমার ভাইকে ছুরি দিয়ে গলায় আঘাত করে। পরে আমার ভাই হাসপাতালে মারা যায়। আমি আমার ভাইয়ের হত্যার বিচার চাই। খুনি রাব্বির ফাঁসি চাই।

ওই পাম্পের ম্যানেজার সাগর বলেন, সামান্য টাকা নিয়ে দুজনের মধ্যে বাগ্বিতন্ডা হয়। এরপর রাব্বি ছুরিকাঘাত করেন। যা সম্পন্ন সিসি টিভির ফুটেজে রেকর্ড আছে। এরপর এখান থেকে সে পালিয়ে যায়।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বেলতলী কৃষ্ণপুরস্থ এস.কে পেট্রোল পাম্পের কর্মচারী রাব্বি তার সহকর্মী কাজী মারুফকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক রয়েছেন।
এ ঘটনায় মারুফের বড় ভাই নাজমুল বাদী হয়ে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের নিকট
হস্তান্তর করা হয়েছে। রাব্বিকে আটক করতে আমাদের সার্কেল স্যার সহ কাজ করছে।

কুমিল্লা পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান বিপিএম বার বলেন, ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে ও অভিযুক্ত ব্যক্তির সাথে আর কেউ যুক্ত ছিলো কিনা, তাও জানার চেষ্টা চলছে। এ হত্যার ঘটনার পর পুলিশের কয়েকটি টিম আসামিকে আটক করতে কাজ করছে। আশা করি শিগগিরই আসামিকে আটক করতে সক্ষম হব।