কুমিল্লা কারাগারে বসে পরীক্ষা দেওয়া একজন পাস, অন্যজন ফেল

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ৪ মাস আগে

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় কুমিল্লা কারাগারে বসে পরীক্ষা দেয়া দুই শিক্ষার্থীর মধ্যে একজন কৃতকার্য হয়েছে। অপরজন এক বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছে। শুক্রবার ফলপ্রকাশের পর দুই উপজেলার দুই বিদ্যালয়ের প্রধানদের সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।
কারাগারে বসে পরীক্ষা দেয়া দুই শিক্ষার্থী হলেন, কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার মানিকারচর সাহেরা লতিফ মেমোরিয়াল গার্লস হাইস্কুলের নুসরাত তাবাসসুম মিম ও দাউদকান্দি উপজেলার সুবল আফতাব উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থী সাইফা আক্তার।
দাউদকান্দির সুবল আফতাব উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সেলিম বলেন, সাইফা আক্তার একটি হত্যা মামলার আসামি হয়ে কারাগারে যায়। গতবছর সে অকৃতকার্য হয়েছিল। এবারের পরীক্ষায় গণিতে পাস করেছে। সে জিপিএ ৩. ৬১ এ পেয়েছে। সে বর্তমানে জামিনে বাইরে আছে। আমাদের স্কুলে এবারের পরীক্ষায় ৮৯দশমিক ৭১ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। জিপিএ ৫ পেয়েছে ৪৩ জন।

মানিকারচর সাহেরা লতিফ মেমোরিয়াল গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম ভূঁইয়া জানিয়েছেন, নুসরাত পারিবারিক একটি বিষয় নিয়ে কারাগারে সেইফ হোমে ছিল। এ সময় সে পরীক্ষা দেয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করলে কারাকর্তৃপক্ষ সেই সুযোগ করে দেয়। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে সে পদার্থ বিজ্ঞানে অকৃতকর্তা হয়েছে। অন্যসব বিষয় পাশ করেছে। সে ফল প্রকাশের আগেই থেকেই জামিনে আছে। এই বিদ্যালয়ের পাশের হার ৯৮ দশমিক ২ শতাংশ। তার মাঝে জিপিএ ৫ পেয়েছে পাঁচজন।

কুমিল্লা কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ- আল- মামুন বলেন, দুজন শিক্ষার্থী কুমিল্লা কারাগারে পরীক্ষা দিয়েছে। আমরা তাদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি। কিন্তু ফলপ্রকাশের আগেই তাদের জামিন হয়ে যায়। তাই ফলাফলের বিষয়ে এখনও জানিনা।