কুসিক নির্বাচন : হলফলামা থেকে… ৮ বছরের ১৪ মামলার আসামী স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কায়সার

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ মাস আগে

স্টাফ রিপোর্টার ।। কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে অংশগ্রহনকারী ৬ প্রার্থীর মধ্যে সবচেয়ে বেশি মামলার আসামী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ও কুমিল্লা মহানগরের স্বেচ্ছাসেবক দলের সদ্য সাবেক সভাপতি নিজাম উদ্দিন কায়সার। ২০১০ সাল থেকে ২০১৮ সালের মাধ্যে ১৪ টি মামলা হয় তার বিরুদ্ধে। যার মধ্যে বর্তমানে সর্বোচ্চ ৮ টি মামলা চলমান রয়েছে, এছাড়াও আরো ৬ টি মামলা থেকে তিনি অব্যহতি পেয়েছেন।
কুসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে জমকৃত হলফনামা পর্যালোচনা করে দেখা যায়,কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছোসেবক দলের সাবেক সভাপতি ও কুসিকের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন কায়সার এর বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ১৪ টি মামলা রয়েছে। যার মধ্যে বর্তমানে ৮ টি মামলা বিচারাধীন আছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিনের হলফ নামায় দেখা যায়, সবকটি মামলা ২০১০ সাল থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে দায়ের করা। দায়েরকৃত মামলাগুলোর মধ্যে রয়েছে আইন শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার), বিশেষ ক্ষমতা আইন ও বিস্ফোরক উপাদানবলি আইন।
৮ বছরের ১৪ টি মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, শুধুমাত্র বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত থাকার কারনেই আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা বানোয়াট মামলা দায়ের করে বর্তমান সরকার। শুধুমাত্র মামলা দায়ের করে ক্ষান্ত হয়নি আমার বাড়ী-ঘরে হামলা ও লুটপাট করেছে তারা।
তরুণ মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার আরো বলেন, গত ১৫ বছরের দীর্ঘ সময় ধরে আমাকে পালিয়ে বেড়াতে হয়েছে। তাছাড়া মিথ্যা মামলায় আমি দুই বার কারাবরণ করেছি। প্রথমবার আমি জেলা যাওয়ার পর ফাঁসির আসামীদের জন্য রক্ষিত কনডেম সেলে আমাকে রাখা হয়েছিলো, দীর্ঘদিন আমি কনডেম সেলে ছিলাম।
দ্বিতীয় বার আমি আদালতে আত্মসমর্পন করলে আদালত আমাকে জেলা পাঠানোর নির্দেশ দেয়। জেলে পাঠানোর পর আমাকে অবৈধ ভাবে ২০ দিন আমদানিতে রাখা হয়। আমি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ডাক্তার আমাকে চিকিৎসার জন্য মেডিকেলে পাঠায়। কিন্তু বর্তমান সরকারের লোকজন আমাকে হাসপাতাল থেকে বের করে দেয়। আমি বিনা চিকিৎসায় জেলখানায় ছিলাম।
নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন আরো বলেন, আমি বাসা-বাড়িতে আসলে পুলিশের আনাগুণা বেড়ে যায়, আমরা কান্দিরপাড়ে হাঁটলে অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
তিনি আরো বলেন, ২০১৪ সালে আমার বাড়ীতে বর্তমান সরকারের নির্দেশে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা হামলা চালায়। তারা আমার বাড়িতে প্রবেশ করে ঘরের সকল মালামাল ভাংচুর করে। আমি পলাতক ছিলাম, তাঁরা আমার পরিবারের সদস্যদের হুমকি দিয়ে যায়।
নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা পরায়ন মামলা ছাড়া আমার বিরুদ্ধে আর কোন মামলা নেই। গণতন্ত্রের মা ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারুন্যের অহংকার,আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমানের নেতৃত্ব থেকে আমাকে কোন অপশক্তিই দূরে রাখতে পারবে না।
বর্তমান মেয়র পদে নির্বাচনে অংশগ্রহন করার কারনে তারা আবারো আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। আমি আশাবাদী সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে কুমিল্লা নগরবাসী আমাকে মেয়র নির্বাচিত করবেন ইনশাআল্লাহ্।