চৌদ্দগ্রামে প্রকাশ্য দিবালোকে চাচাতো ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করে জেঠাত ভাই

রুবেল মজুমদার
প্রকাশ: ২ মাস আগে

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে পরিবারিক জমি নিয়ে দ্বন্ধের জেরে প্রকাশ্যে দিবালোকে দেশি অস্ত্র দিয়ে আপন চাচাতো ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করে আপন জেঠা ভাই। নিহত মোঃ ইসরাফিল (২৬) উপজেলার তারাশাইল গ্রামের প্রবাসী কালা মিয়ার পুত্র। ঘটনাটি ঘটেছে

আজ রোববার (৮এপ্রিল) দুপুর ২ টায় জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার তারাশাইল গ্রামে। একই ঘটনায় আরো তিনজনকে কুপিয়ে গুরুতর আহ করা হয়েছে।

আহতরা হলো, হানিফ মিয়া স্ত্রী রিনা বেগম, আবু বক্করের স্ত্রী আশয়া বেগম,মো ইউছুম মিয়া। তাদের সবাইকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্র জানায় ,বাড়ির জায়গা নিয়ে আপন জেঠা ভাই মুক্তর হোসেনের ছেলেদের সাথে দীর্ঘ বিরোধ চলে আসছিলো কালা মিয়ার ছেলেদের।

এই বিরোধ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মীমাংসা করে দিলেও মুক্তার হোসেনের ছেলেরা তা না মেনে কালা মিয়ার পরিবারে উপর বিভিন্ন সময় হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিলো।

আজ রবিবার একই ঘটনাকে কেন্দ্র করে একালাবাসীর সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে ইসরাফিলকে কুপিয়ে প্রথমে আহত করে। পরে জবাই করে হত্যা নিশ্চিত করে মুক্তার মিয়ার পুত্র সবিজ মিয়া ।
ঘটনার পর পরই সবিজ পালিয়ে যায়।

নিহত ইসরাফিলের স্ত্রী রিয়া আক্তার বলেন,আমার স্বামী কে আমি ও আমার ১০ মাসের বাচ্চার সামনে জবাইকে করে হত্যা করে। বাড়ির কয়েকজন বাধা দিতে গেলে মৌসুমি ও তার বোন আমার শ্বাশুরিকেও কুপিয়ে আহত করে। আমি আমার স্বামীর খুনিদের বিচার চাই।

চৌদ্দগ্রাম থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন খবর পেয়েই আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে চার জনকে আটক করেছি। বাকীদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।
এবিষয় এখনো কোনো মামলায় হয়নি।